রবিবার, ১৩ Jun ২০২১, ১২:৪০ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
উজিরপুরে হরেন্দ্র-মালতী কল্যাণ ট্রাস্ট’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ শ্রেষ্ঠ এস,আই পুরস্কার পেলেন গৌরনদী মডেল থানার আব্দুল হক।। শ্রেষ্ঠ “ওসি” পুরস্কার পেলেন গৌরনদী মডেল থানার আফজাল হোসেন।। ওসির হস্তক্ষেপে গৌরনদীর বেঁধে পল্লীতে শান্তির সু-বাতাস গৌরনদীতে জোড়া লাগানো জমজ কন্যা শিশুর জন্ম হত্যার পর গুম হওয়া কলেজ ছাত্রীর লাশ ধানক্ষেত থেকে উদ্ধার গৌরনদীতে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষ্যে অবহিতকরণ ও কর্মপরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত গৌরনদীতে মাদরাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ কৃষাণীদের মাঝে চারা বিতরণ হত্যার পর কলেজ ছাত্রী স্ত্রীর লাশ গুম বাবুগঞ্জ থানায় নতুন ওসি মাহাবুবুর রহমান গৌরনদীতে ফুটবল টূর্নামেন্টের প্রস্তুতি সভা বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেল স্কুল ছাত্রী ভাতিজার লাশ রেখে পালালেন চাচা, মায়ের অভিযোগ ‘হত্যা’ গৌরনদীতে আইনশৃঙ্খলা ও ইয়াসের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত
ভাতিজার লাশ রেখে পালালেন চাচা, মায়ের অভিযোগ ‘হত্যা’

ভাতিজার লাশ রেখে পালালেন চাচা, মায়ের অভিযোগ ‘হত্যা’

নিজস্ব প্রতিনিধি।।

বরিশালের গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভাতিজা উজ্জ্বল কাজীর (২৪) লাশ ফেলে চাচা আগৈলঝাড়ার বেলুহার গ্রামের ঠিকাদার মাসুম কাজী (৪৫) পালিয়ে গেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। চিকিৎসক গৌরনদী মডেল থানা–পুলিশকে ঘটনাটি জানালে গতকাল বুধবার রাত ১১টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়। এদিকে নিহত তরুণের মা হাসি বেগমের (৪০) অভিযোগ, তাঁর দেবর তাঁর ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছেন।

গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক দেওয়ান আবদুস সালাম বলেন, গতকাল রাত ১০টার দিকে মাসুম কাজী ও তাঁর সহযোগী জাহিদ সরদার চিকিৎসার জন্য উজ্জ্বলকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তাঁরা বলেন যে এই রোগী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছেন। এ সময় তিনি পরীক্ষা–নিরীক্ষা করে দেখতে পান, ওই তরুণ অনেক আগেই মারা গেছেন এবং গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার কোনো লক্ষণ নেই। ধারণা করা হয়, রোগীকে হত্যা করা হয়েছে। বিভিন্ন বিষয়ে রোগীর স্বজনদের কাছে জানতে চাইলে তাঁরা বাইরে যাওয়ার কথা বলে পালিয়ে যান। পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

গৌরনদী মডেল থানার পরিদর্শক তদন্ত মো. তৌহীদুজ্জামান বলেন, হাসপাতাল থেকে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ বরিশালের শের–ই–বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

উজ্জ্বলের মা হাসি বেগমের ভাষ্য, তাঁর স্বামীর মৃত্যুর পর জমিজমা নিয়ে তাঁর দেবর মাসুম কাজীর সঙ্গে বিরোধ চলছে। বিরোধের জেরে ঝগড়ার একপর্যায়ে ২৫ মে দেবর মাসুম কাজী তাঁকে (হাসি বেগমকে) ও তাঁর ছোট মেয়ে তানহাকে বাড়ি থেকে বের করে দেন। তিনি তখন বড় মেয়ে সাকিবা আক্তারের শ্বশুরবাড়িতে চলে যান। ছেলে উজ্জ্বল কাজী তখন বরিশালে ছিল। মায়ের অভিযোগ, তাঁর দেবর তাঁর ছেলেকে খবর দিয়ে বাড়িতে আনেন। এরপর ছেলেকে মেরে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে একাধিকবার মাসুম কাজীকে কল দিলে তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

আগৈলঝাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মাজাহারুল ইসলাম বলেন, উজ্জ্বল কাজীর মা ও স্বজনেরা থানায় অবস্থান করে হত্যার অভিযোগ করছেন। লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2016
Design By Rana